1. admin@www.shikhatvlive.com : news :
বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৭:৪৪ পূর্বাহ্ন

গৌরনদীতে ডাক্তার স্ত্রীর যৌতুক মামলায় ডাক্তার স্বামী কারাগারে \ এলাকায় চাঞ্চল্য

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: বুধবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২২
  • ২২ ,৫২৫০ বার পড়া হয়েছে

মোঃ ফারহান হোসেন,গৌরনদী (বরিশাল)
বরিশালের গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত নারী এমবিবিএস চিকিৎসক ডাঃ মিলাদুজ্জাহান ইরা’র করা যৌতুকের জন্য শারীরিক নির্যাতন ও নির্যাতন করে আটকে রাখার মামলায় পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছেন তার স্বামী ওই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত অপর এমবিবিএস চিকিৎসক ডাঃ মোঃ টিপু সুলতান। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
মামলার বাদী ৪২তম বিসিএসের স্বাস্থ্য ক্যাডারে সদ্য নিয়োগ পাওয়া নারী চিকিৎসক ডাঃ মিলাদুজ্জাহান ইরা (২৮)’র পিত্রলয় হল কুমিল্লা সদর থানার দৈয়ারা কচুয়া চৌমুহুনী গ্রামে। আর গ্রেফতার হওয়া তার স্বামী ডাঃ মোঃ টিপু সুলতান ৩৮তম বিসিএস ক্যাডার। তাঁর পিত্রালয় হল গৌরনদী উপজেলার নলচিড়া গ্রামে।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত ২০২১ সালের আগস্ট মাসে ডাঃ মিলাদুজ্জাহান ইরা’র সঙ্গে ডাঃ টিপু সুলতানের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই ডাঃ টিপু সুলতার ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে ডাঃ ইরা’কে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করতে থাকে।
গত ৪ঠা জানুয়ারী টিপু সুলতান তার নলচিড়া গ্রামের বসতবাড়ির দক্ষিন পাশের একটি রুমে ইরা’কে আটক করে মারধর করেন। এক পর্যায় সিলিং ফ্যানে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলিয়ে হত্যার চেষ্টা করেন। অনেক অনুরোধ ও ১০ লাখ টাকা দেয়ার আশ্বাস দিয়ে ওই অবস্থা থেকে সে মুক্তি পায়। ঘটনার পর বিষয়টি ইরা তার পিতাকে যৌতুক দাবির বিয়টি জানালে তিনি টিপুর পিতার সাথে কথা বলে একটি সমাযোতায় পৌছার চেষ্টা করেন। তবে তাতে ডাঃ টিপুর পিতা আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ বাদশা ফকির কর্ণপাত করেননি।
এরপর গত ৩রা এপ্রিল টিপু ইরা’কে নিয়ে গৌরনদী উপজেলা সদরের প্রাইভেট একটি ক্লিনিকের তৃতীয় তলার একটি রুমে আটকে রাখে। সেখানে বসে যৌতুকের ১০ লাখ টাকার জন্য সে পুনরায় ইরা’কে মারধর করে জখম করে। এ সময় ওই ক্লিনিকের কর্মীরা এগিয়ে এলে ইরা’কে নিয়ে টিপু তার বাড়িতে চলে যায়। এরপর বাড়ি’র একটি কক্ষে তাকে আটকে রেখে ইরা’র ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নিয়ে যায়।
পরে এক প্রতিবেশীদের সহয়তায় ইরা তাঁর পিতাকে এ ঘটনা জানালে তিনি কুমিল্লা থেকে ছুটে এসে ইরা’কে উদ্ধার করেন। মঙ্গলবার রাতে ডাঃ ইরা নিজে বাদি হয়ে স্বামী ডাঃ টিপু সুলতান ও শশুর মোঃ বাদশা ফকিরকে আসামি করে গৌরনদী মডেল থানায় একটি যৌতুক দাবি ও নির্যাতনের মামলা করেন। গৌরনদী মডেল থানা পুলিশ পুলিশ ওই রাতেই কৌশলে ডাঃ টিপু সুলতানকে গ্রেফতার করে।
অপর দিকে যৌতুকের জন্য এমবিবিএস চিকিৎসক স্ত্রীকে শারীরিক নির্যাতন ও আটকে রাখার ঘটনায় এমবিবিএস চিকিৎসক স্বামী গ্রেফতারের খবরে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। শতশত উৎসুক জনতা অভিযুক্ত চিকিৎসককে এক নজর দেখার জন্য বুধবার ভোরে গৌরনদী মডেল থানার সামনে ভীর করে।
অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রেফতারে খবরে মুঠোফোনে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে মামলার বাদি নারী চিকিৎসক ডাঃ মিলাদুজ্জাহান ইরা সংবাদ মাধ্যমের কাছে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি। তিনি মামলার এজাহারের বাইরে তার উপরে নির্যাতনের কোন তথ্য দিতেও অস্বীকৃতি জানান।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও গৌরনদী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ হেলাল উদ্দিন বলেন, যৌতুকের দাবিতে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগে স্ত্রীর করা মামলায় ডাঃ টিপু সুলতানকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। বুধবার দুপুরে অভিযুক্ত চিকিৎসককে বরিশাল আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। ##

 

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট নকশা প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত