1. admin@www.shikhatvlive.com : news :
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:১৭ অপরাহ্ন

দৃষ্টিনন্দন পদ্ম ফুলের সৌন্দর্যে দর্শনার্থীদের মুখে হাসি

দুলাল বিশ্বাস।
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২১
  • ৪৪ ,৫২৫০ বার পড়া হয়েছে

দুলাল বিশ্বাস, গোপালগঞ্জ :
গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার বলাকইড় বিল জুড়ে সৌন্দর্যের আভা ছড়াচ্ছে ফুটে থাকা রাশি রাশি পদ্ম। এসব ফুল শুধু বিল নয়, সৌন্দর্য বাড়িয়ে তুলেছে প্রকৃতির। ফুটে থাকা এসব পদ্ম ফুলের সৌন্দর্য দেখতে প্রতিদিনই ছুটে আসেন হাজারো দর্শনার্থী।
পদ্ম ফুলের এমন সমারোহ জেলা শহর থেকে মাত্র ১২ কিলোমিটার দুরে অবস্থিত বলাকইড় বিল। ১৯৮৮ সালের পর থেকে বর্ষাকালে এ বিলের অধিকাংশ জমিতেই প্রকৃতিকভাবে জন্মে পদ্ম ফুল।
জানা যায়, আষাঢ় থেকে কার্তিক মাস পর্যন্ত বলাকইড় বিলে পদ্ম ফুল থাকে। এসময় পুরো বিল গোলাপি রঙের পদ্ম ফুলে ভরা থাকে। যতদূর চোখ যায় শুধু পদ্ম ফুলের দেখা মিলে। এ যেন বিধাতার এক অপরূপ সৃষ্টি, যা দেখলে সবার মন জুড়িয়ে যায়।
পদ্ম ফুলের সৌন্দর্য উপভোগ করতে পূর্বের আকাশে সূর্য উঁকি দেওয়ার পরপরই বিলে আসেন পর্যটকরা। স্থানীয়রাও ভ্রমণ পিপাসুদের সার্বিক সহযোগিতা করেন। এছাড়া বিলে ঘুরতে আসা দর্শনার্থীদের নৌকায় ঘুরিয়ে অনেকেরই হয়েছে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা। প্রতিদিন ৮০০থেকে ১০০০পর্যন্ত টাকা আয় করছেন তারা।
গোপালগঞ্জ শহরের গৃহবধূ অনামিকা বিশ্বাস বলেন, ফেসবুক ও ইউটিউবের মাধ্যমে জেনেছি গোপালগঞ্জে পদ্ম বিল রয়েছে। করোনার কারণে ঘর বন্দি থাকায় পরিবার পরিজন নিয়ে পদ্ম ফুলের সৌন্দর্য উপভোগ করতে এসেছি। দেখে মনে হয়নি এটা পদ্ম ফুলের বিল, মনে হয়েছে সৌন্দর্যের স্বর্গভ‚মি।
নড়াইল থেকে ঘুরতে আসা শিক্ষিকা সমাপ্তি মন্ডল বলেন, গোপালগঞ্জে বড় বোনর বাড়িতে বেড়াতে এসেছি। তাই বায়না ধরেছিলাম পদ্ম ফুল দেখতে যাবো। এখনে এসে যা দেখলাম তা শোনার থেকেও অনেক বেশি। পদ্ম ফুলের সৌন্দর্যে পুরোই মুগ্ধ হয়ে গেছি।
দর্শনার্থী সুদীপ্ত বিশ^াস ও আলাউদ্দিন শেখ বলেন, আমরা বলাকইড় বিলে পরিবার নিয়ে পদ্ম ফুল দেখতে এসেছি। দেখে খুবই ভালো লেগেছে। তবে এখানে আসার একমাত্র সড়কটির বেহাল অবস্থা। দর্শনার্থীদের আসতে কষ্ট হয়। শীঘ্রই সড়কটি মেরামতের দাবি জানাই।
পদ্ম বিল পাড়ের বাসিন্দা ইয়াছিন বেগম বলেন, বিভিন্ন জেলা থেকে মানুষ পদ্ম বিলের সৌন্দর্য উপভোগ করতে আসেন। তাদের নৌকায় ঘুরিয়ে অর্ধশতাধিক পরিবার জীবিকা নির্বাহ করছেন। তবে এখানে আসার রাস্তাটি ছোট ও খারাপ অবস্থায় আছে। তাই অনেকেই গাড়ি নিয়ে আসতে পারেন না। রাস্তাটি সংস্কার করা হলে এখানে অনেক দর্শনার্থী আসবেন। এতে বিল পাড়ের আরও অনেক মানুষের কর্মসংস্থান হবে।
জেলা কালচারাল অফিসার মামুন বিন সালেহ বলেন, বঙ্গবন্ধুর পূর্ণ ভূমি গোপালগঞ্জ জেলা এখন দেশের মডেল। যে কারনে পর্যটক এবং দর্শনার্থীদের ভীড় জমে এখানে। পদ্মফুল গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য।একে রক্ষা ও সংরক্ষণ করা একান্ত প্রয়োজন।
জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা বলেন, গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় রয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিস্থল। দৈনিক দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে পর্যটকরা এখানে আসনে। পদ্ম বিলকে ঘিরে মৌসুমি পর্যটন স্থান হিসাবে গড়ে তোলার জন্য মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, পদ্ম বিলে যাওয়ার রাস্তাটি ভালো করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সড়কটি মেরামত করা হলে দর্শনার্থীদের আর কোনও সমস্যা থাকবে না।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট নকশা প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত