1. shikhatvlive@gmail.com : Shikha TV Live :
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:২৩ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর এমপিওভুক্ত শিক্ষক মোকাররম হোসেন এর আবেগঘন খোলা চিঠি পরিবারের আয়ের পথ না থাকায় তারা বাধ্য হয়েই কাঁকড়া শিকারের কাজে নেমেছেন, স্কুলে ফেরানোই এখন বড় চ্যালেঞ্জ! শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে এখনো সংক্রমণের খবর আসেনি : শিক্ষামন্ত্রী নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনা নিয়ে হাইকোর্টের দেওয়া রুলের শুনানি শেষ, রায় অপেক্ষামান সাধারণ পর্যটক হিসেবে মহাকাশ ঘুরে এলেন চার পর্যটক লক্ষ বেকারের আস্তা ও বিশ্বাসের প্রতিক রিং আইডি।। তরুণ উদ্যোক্তা সাহাবুর সকলের সহযোগিতা চায়। নাটোরে আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত রাতের অন্ধকারে ঘরের দুয়ারে চিরকুটসহ টাকা রাজশাহীতে ভুল চিকিৎসায় জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে শিশু রাফি গোপালগঞ্জে শ্রীশ্রী গীতাযজ্ঞানুষ্ঠান

কিছু লোক আশ্রয়ণের ঘর ভেঙে মিডিয়ায় প্রচার করেছে: প্রধানমন্ত্রী

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৫ ৫০০০ বার পড়া হয়েছে

শিক্ষা টিভি লাইভ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, মুজিবর্ষের দেওয়া উপহারের ঘর হাতুড়ি ও শাবল দিয়ে ভেঙে ষড়যন্ত্রকারীরা গণমাধ্যমে প্রচার করেছে। তিনি বলেন, গরিবের ঘর সেখানে হাত দেয় কিভাবে, এ ব্যাপারে নেতাকর্মীদের সর্তক থাকা দরকার।

শেখ হাসিনা আরো বলেন, কিছু মানুষ মুজিববর্ষ উপলক্ষে আশ্রায়ন-২ প্রকল্পের অধীনে উপহারের দেড় লাখের মতো ঘর নির্মাণ করা হলেও ৩০০টিতে ত্রুটি দেখা দিয়েছে। আর বাকিগুলো ষড়যন্ত্রকারীরা ভেঙে মিডিয়ায় প্রচার করেছে। যারা ঘর ভেঙেছে তাদের নামের তালিকাসহ তদন্ত প্রতিবেদন হাতে রয়েছে।

বৃহস্পতিবার গণভবনে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভার সূচনায় সভাপতির বক্তব্যে দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা বলেন, সব থেকে দুর্ভাগ্য হলো যখন সিদ্ধান্ত নিলাম প্রত্যেকটা মানুষকে আমরা ঘর করে দিবো। দেশের কিছু মানুষ এত জগন্য চরিত্রের, আমি কয়েকটা জায়গায় হঠাৎ দেখলাম যে কি ঘর ভেঙে পড়ছে। কোন জায়গায় ভাঙা ছবি ইত্যাদি দেখার পরে পুরো সার্ভে করালাম কোথায় কি হচ্ছে। সেখানে আমরা প্রায় দেড় লাখের মতো ঘর তৈরি করে দিয়েছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ৩০০ টা ঘর ভেঙেছে। বিভিন্ন এলাকায় কিছু মানুষ নিজে থেকে যেয়ে হাতুড়ি, শাবল দিয়ে সেগুলো ভেঙে ভেঙে তারপর মিডিয়ায় সেগুলো ছবি তুলে দিচ্ছে। তাদের নাম ধাম এগুলো একদম এনকোয়ারি করে সবগুলো বের করা হয়ে গেছে। আমার কাছে যে পুরো রিপোর্টটা আছে। গরিবের জন্য ঘর করে দিচ্ছি, তারা এই ভাবে যে ভাঙতে পারে, সেই ছবিগুলো দেখলে বোঝা যায়।

ঘর ভেঙে পড়ার পেছনের কারণ মিডিয়া অনুসন্ধান করেনি অভিযোগ করে তিনি বলেন, মিডিয়া এগুলো ধারণ করে প্রচার করে। তারা এটা কিভাবে হলো সেটা কিন্তু খোঁজে না। আশ্রায়ণ-২ প্রকল্পের অধীনে ঘর নির্মাণে সবাই আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করেছে। ইউএনও-ডিসি সমস্ত কর্মচারীরা ছিল। তারা কিন্তু অনেকে নিজেরা এগিয়ে এসেছে ঘরগুলো তৈরিতে সহযোগিতা করার জন্য।

 

তিনি আরো বলেন, তদন্তে ৯টি জায়গায় দুর্নীতি পাওয়া গেছে। একজায়গায় ৬০০টি ঘর। সেখানে হয়তো ৩/৪ টা ঘর, প্রবল বৃষ্টিতে মাটি ধসে নষ্ট হয়েছে। মাত্র ৯টা জায়গায় আমরা এ খবর পেয়েছিলাম, যেখানে কিছুটা দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

তিনি বলেন, যারা ইট তৈরি করে তারাও এগিয়ে এসেছে। অল্প পয়সায় তারা ইট দিয়েছে। এভাবে সবাই সহযোগিতা করেছে। কিন্তু এর মধ্যে দুষ্টু বুদ্ধির কিছু এ ঘটনা ঘটিয়েছে, এটাই হচ্ছে সবচেয়ে কষ্টকর

শিক্ষা টিভি লাইভ এর সংবাদ শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত