1. shikhatvlive@gmail.com : Shikha TV Live :
বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ০৪:৪৫ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর এমপিওভুক্ত শিক্ষক মোকাররম হোসেন এর আবেগঘন খোলা চিঠি নায়িকা পরীমণি ও প্রযোজক রাজসহ ৪ জনকে গ্রেফতার দেখিয়েছে র‍্যাব মৌ-পিয়াসার প্রধান সমন্বয়কের বিরুদ্ধে ৫ মামলা, রিমান্ড আবেদন বিশ্বের সবচেয়ে উঁচুতে রাস্তা বানিয়ে ভারতের রেকর্ড দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জাতীয় শোক দিবস পালনের নির্দেশ কয়রায় হরিণের মাংসসহ হরিণ শিকারী আটক। আবারও  শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের জন্য বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে NTRCA পরীমনির অন্ধকার জগত নিয়ে যা জানা গেল শিল্পকারখানা খোলা, অভ্যন্তরীণ রুটে চলবে বিমান কোটালিপাড়ায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে হুমকির মুখে ফসলি জমি, রাস্তাঘাট ও বসত বাড়ি বিধিনিষেধ থাকলেও শুক্রবার থেকে চলবে বিমান

রিফাত হত্যার দুই বছর আজ, আসামিদের দণ্ড দ্রুত কার্যকরের দাবি

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: শনিবার, ২৬ জুন, ২০২১
  • ৪৪ ৫০০০ বার পড়া হয়েছে

 

বরগুনা প্রতিনিধি
বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডের আজ শনিবার (২৬ জুন) দুই বছর পূর্ণ হলো। রিফাতের অনুপস্থিতি পরিবারে সবাইকে মানসিক যন্ত্রণা দিচ্ছে বলে জানালেন তাঁর বাবা, মা ও বোন। ছেলে হারানোর শোকে শয্যাশায়ী রিফাতের মা। আসামিদের দণ্ড দ্রুত কার্যকরের দাবি জানিয়েছেন স্বজনেরা।

নিহত রিফাতের বাবা আবদুল হালিম দুলাল শরীফ বলেন, ‘রিফাত আমার একমাত্র ছেলে ছিল। এক ছেলে ও এক মেয়ে নিয়ে আমার সুখের সংসার ছিল। মিন্নির কারণে আমার সেই সুখের সংসার ভেঙে তছনছ হয়ে গেছে।’ তিনি আরও বলেন, তিনি বিভিন্ন স্থানে ঘুরে বেড়ান। এ জন্য ছেলে হারানোর শোক সাময়িক ভুলে থাকার সুযোগ পান। কিন্তু তাঁর স্ত্রী ও একমাত্র মেয়ে বাড়িতে থাকায় রিফাতের শূন্যতা তাঁরা বেশি অনুভব করেন। ছেলে হত্যাকাণ্ডের বিচারের রায় কার্যকর হলে তাঁরা শান্তি পাবেন।

নিহত রিফাতের মা ডেইজি আক্তার কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘আমি আমার বাবাকে (রিফাত) ছাড়া থাকতে পারি না। আমি চাই যত দ্রুত সম্ভব এ মামলায় আদালতের দেওয়া দণ্ড দ্রুত কার্যকর হোক।’

২০১৯ সালের এই দিনে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনের সড়কে স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির সামনে সন্ত্রাসীরা রিফাতকে কুপিয়ে জখম করে। তাঁকে বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর সেখানে বিকেলে তিনি মারা যান। পরদিন ১২ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ৫ থেকে ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন রিফাতের বাবা আবদুল হালিম দুলাল শরীফ। মামলার প্রধান আসামি সাব্বির আহম্মেদ ওরফে নয়ন বন্ড ওই বছরের ২ জুলাই পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন।

 

গত বছর সেপ্টেম্বর মাসে এই হত্যা মামলায় প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামির মধ্যে ৬ আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দেন আদালত। রায়ে নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকাসহ ছয় আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। বাকি চার আসামিকে খালাস দেওয়া হয়েছে। গত বছরের ২৭ অক্টোবর অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ আসামির মধ্যে ১১ আসামিকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে। রায়ে ৬ আসামিকে ১০ বছর করে, ৪ আসামিকে ৫ বছর করে এবং ১ আসামিকে তিন বছর কারাদণ্ড দেওয়া হয়। বাকি ৩ আসামিকে খালাস দেন আদালত। পরে নিম্ন আদালতের এ রায়ের পর উচ্চ আদালতে আপিল করেন দণ্ডিত আসামিরা। বর্তমানে করোনার কারণে মামলার বিচার কার্যক্রম থমকে আছে

শিক্ষা টিভি লাইভ এর সংবাদ শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত