1. shikhatvlive@gmail.com : Shikha TV Live :
সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ০৩:৩৫ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর এমপিওভুক্ত শিক্ষক মোকাররম হোসেন এর আবেগঘন খোলা চিঠি ঠাকুরগাঁওয়ে বালিয়াডাঙ্গীতে স্ত্রীর মর্যাদা পেতে ১৪ দিন ধরে শ্বশুরবাড়িতে মেয়েটির অবস্থান । অবশেষে মাদরাসার গ্রন্থাগারিকরাও শিক্ষক মর্যাদা পেলেন মানবিক ইউএনওঃ দন্ডের পরিবর্তে দিলেন খাদ্য সহায়তা গোপালগঞ্জে সাংবাদিকদের ঈদ উপহার দিলেন জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা করোনায় দেশে ২২৮ জনের মৃত্যু! মৌলভীবাজারের সুমারাই মনুনদীর পাড় থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার। পদ্মায় নৌকা ডুবে মোটরসাইকেল হারালেন রাজিব সিরিজ জয়ে ১৯৪ রান করতে হবে টাইগারদের পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা: ফেরির ২ চালককে দায়ী করে পদ্মা ৯৪ বছর বয়সে বিয়ের গাউনে স্বপ্নপূরণ

বরগুনা তালতলী পিতার হাতে পুত্র খুন

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: বুধবার, ২৩ জুন, ২০২১
  • ৪৭ ৫০০০ বার পড়া হয়েছে

 

তালতলী প্রতিনিধি ॥
বরগুনা তালতলী মাকে রক্ষায় দশম শ্রেণীর ছাত্র মোঃ সুমন (১৫) পিতা আসাদুল খাঁনের হাতে নিহত হয়েছে।

আজ বুধবার (২৩জুন) সকাল ১১ টার সময় উপজেলার টিএনটি রোডে  এমন ঘটনা ঘটে।

আমতলী থানা পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে প্রেরণ করেছে। বাবা আসাদুল খাঁন নিহত ছেলে সুমনের মরদেহ আমতলী হাসপাতালে রেখে পালিয়েছে। স্কুল ছাত্র সুমনের নিহতের ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি ও শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

জানাগেছে, তালতলী উপজেলা শহরের টিএনটি সড়কের আসাদুল খাঁনের সাথে তার স্ত্রী সেলিনা বেগমের পারিবারিক বিষয় নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। বুধবার বেলা ১১ টার দিকে বাবা ও মা ঝগড়ায় জড়িয়ে পরে। এ সময় ছেলে সুমন বাড়ীতে ছিল না। প্রাইভেট পড়তে তালতলী সরকারী মাধ্যমিক স্কুলে যায়। সুমন বাড়ীতে এসেই দেখে বাবা আসাদুল খাঁন মা সেলিনাকে ধারলো অস্ত্র দিয়ে কোপাতে উদ্ধত হয়। এ সময় ছেলে বাবাকে ফেরাতে মায়ের মাসনে দাড়ায়। ওই মুহুর্তে ধারালো অস্ত্রের আঘাত স্ত্রী সেলিনা বেগমের শরীরের না লেগে ছেলে সুমনের কপালে লাগে। মুহুর্তের মধ্যেই ছেলে সুমন মাটিয়ে লুটিয়ে পড়ে। তাৎক্ষনিক বাবা আসাদুল খাঁন ও স্থানীয়রা উদ্ধার করে তালতলী হাসপাতালে নিয়ে আসে। ওই হাসাপাতালের চিকিৎসক ফাইজুর রহমান সঙ্কটজনক অবস্থায় বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করেন। ছেলের অবস্থা খারাপ দেখে বাবা আসাদুল ছেলে সুমনকে আমতলী হাসপাতালে নিয়ে আসে। ওই হাসপাতালে ছেলেকে রেখেই বাবা আসাদুল খাঁন পালিয়ে যায়। পরে ওই হাসপাতালের চিকিৎসক কেএম তানজিরুল ইসলাম ছেলে সুমনকে মুত্যু ঘোষণা করেন। বাবা হাতে ছেলের নিহতের ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। নিহত সুমনের সহপাঠিরা ঘাতক বাবার দৃষ্টান্তমুলক শান্তি দাববি করেছেন। নিহত সুমন তালতলী সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্র।

মা সেলিনা বেগম কান্নাজনিত কন্ঠে বলেন, আমার স্বামী প্রায়ই আমাকে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে মারধর করতো।

আমাকে রক্ষা করতে গিয়েই আমার ছেলে খুন হয়েছে। আমি এ ঘটনার শাস্তি দাবি করছি।

তালতলী থানার ওসি মোঃ কামরুজ্জামান মিয়া বলেন, খবর পেয়েই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ঘাতক বাবাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

শিক্ষা টিভি লাইভ এর সংবাদ শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত