1. admin@www.shikhatvlive.com : Shikha TV Live :
বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০২:১৪ অপরাহ্ন

স্কুল খোলার পূর্বেই শিক্ষক সংকট দূরীকরণের আবেদন প্যানেল প্রত্যাশীদের।

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: রবিবার, ৬ জুন, ২০২১
  • ৪১৫ বার পড়া হয়েছে

শিক্ষা টিভি লাইভ ডেস্ক

প্রাথমিক স্তরে শিশুদের জন্য সবচেয়ে বড় সমস্যা শিক্ষার মান। অথচ এস ডি জি অর্জনের ৪নং লক্ষ্য হচ্ছে মান সম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করা। নিম্নমানের কারণে শিশুরা উপযুক্ত শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হয় এবং এক পর্যায়ে ঝরে পড়ে। করোনা পরবর্তী সময়ে ঝরে পড়ার হার কত হবে নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। এদিকে বহু প্রিক্যাডেট স্কুল প্রয়োজনীয় বিনিয়োগের অভাবে পথে বসেছে। সে সব স্কুলের ছাত্রছাত্রীর চাপ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কেই নিতে হবে।

নানাবিদ পরিকল্পনা যেমন
১। ওয়ান ওয়ার্ড ওয়ান ডে
২। হ্যালো টিচার
৩। ঘরে বসে শিখি
কার্যক্রমের পরও প্রাথমিক শিক্ষার মান কমছে বলেই মনে হচ্ছে। গত দেড় বছরে শিশুরা ভুলতে বসেছে বিদ্যালয়ে গিয়ে পড়ালেখা বলে কিছু আছে। কঠোর পদক্ষেপ এখনই না নিলে অদূর ভবিষ্যতে শিক্ষার মূল ভিত্তি দূর্বল হয়ে যাবে।

সম্প্রতি মাননীয় গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী বলেছেন প্রাথমিক শিক্ষকদের ঘরে ঘরে গিয়ে শিক্ষা দিতে। কথাটা রুপকথা বলাই ভালো।

তবে প্রাথমিক শিক্ষার প্রধান সংকট পূর্ণ যোগ্যতা সম্পন্ন শিক্ষকের অভাব। সেটা দূর করে অঞ্চল বিভাজন করে প্রতি শিক্ষকের জন্য ২০জন ছাত্র/ছাত্রী নির্ধারণ করে সকাল বিকাল শিফটে স্বাস্থ্যসম্মতভাবে শিক্ষা কার্যক্রম চলমান রাখা যেতে পারে।

বহু বিদ্যালয়ে ধারণ ক্ষমতার চেয়ে ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা অনেক বেশি। এর কারনে শতকরা ৮০ ভাগ প্রতিষ্ঠানই দিনে দুই শিফট চালায়। শিক্ষকদের কার্যক্রম তত্ত্বাবধান, তাদের ওপর নজর রাখা এবং জবাবদিহিতার ঘাটতিও প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা কমিয়ে দেয়।

যেকোনো পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে আগে উপযুক্ত নিয়ামকের ব্যাবস্থা জরুরী। যুদ্ধ শুরুর পূর্বেই সরঞ্জামাদি প্রস্তুুত রাখতে হবে, নইলে পরাজয় নিশ্চিত।মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্যানেল প্রত্যাশীদের আবেদন পূর্ণ যোগত্য সম্পন্ন অপেক্ষমান শিক্ষকদের নিয়োগ দিয়ে করোনা পরবর্তী শিক্ষাকার্যক্রম চালু করুন।

মোঃ আব্দুল কাদের
প্যানেল প্রত্যাশী কেন্দ্রীয় কমিটি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত